ঢাকা    মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০

coronavirus
আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বিশ্বব্যাপী ৪০৬৮০৩২৬ ৩০৩৭২৭৫০ ১১২৩৪৬৯
বাংলাদেশ ৩৯১৫৮৬ ৩০৭১৪১ ৫৬৯৯

দাঁতের ক্ষয় রোধে যেসব অভ্যাস মেনে চলা উচিত

প্রকাশিত: ২০:১০, ২২ এপ্রিল ২০২০  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

শরীরের বাকি অঙ্গের মতো দাঁতের প্রতি সেভাবে খেয়াল রাখেন না অনেকেই! তাই মাঝে মাঝেই দাঁতের ক্ষয় ছাড়াও নানা সমস্যায় ভুগতে হয়। আর দাঁতে ব্যথার বেদনাদায়ক মুহূর্তের সম্মুখীণ যারা হয় তারাই জানে এর কষ্ট।

তবে ছোটবেলা থেকে নির্দিষ্ট কিছু অভ্যাস মেনে চলতে পারলে দাঁতের ক্ষয় যেমন রোধ করা সম্ভব তেমনি দাঁতের অন্যান্য সমস্যা থেকেও দূরে থাকা সম্ভব। সঠিকভাবে দাঁতের যত্ন না নিলে দাঁত এবং মুখের মধ্যে ব্যকটেরিয়া ঘটিত বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতে পারে।

তাই ছোটদের এবং বড়দেরও দাঁতের সুরক্ষা নেয়ার প্রয়োজন রয়েছে। কয়েকটি নিয়ম মেনেই আপনি দাঁতের ব্যথা, ক্ষয়, মাড়ি থেকে রক্তপাত প্রভৃতি সমস্যা রোধ করতে পারেন। তাহলে জেনে নিন কি করবেন-

নিয়মিত ব্রাশ করা  

দাঁতের সুরক্ষা সুনিশ্চিত করতে প্রথমেই যে বিষয়টি মেনে চলতে হবে তা হলো প্রতিদিন দুইবার ব্রাশ করা। সকালে ব্রাশ করার পাশাপাশি রাতেও খাবার পরে ব্রাশ করা আবশ্যক। এতে মাড়ি ও দাঁত দুটোই ভালো থাকে। পাশাপাশি ব্যকটেরিয়ার আক্রমণ থেকে সুরক্ষা পাওয়া যায়।

ভালো করে মুখ ধোয়া  

যে কোনো খাবার খাওয়ার পরেই মুখ পানি দিয়ে ভালো করে ধোয়া উচিত। মিষ্টিজাতীয় বিভিন্ন খাবার, চকলেট, প্রভৃতি খাওয়ার পরে পানি দিয়ে কুলকুচি করতে হবে। তা না হলে দাঁতের মধ্যে লেগে থাকা খাবারের মাধ্যমে ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণ বেড়ে যায়।

নিয়মিত ডাক্তারি পরীক্ষা

দাঁতের সুরক্ষায় নিয়মিত দন্ত বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেয়া উচিত। প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ মতো দাঁতের যত্ন নিতে হবে। অনেক সময় ব্রাশ করার পরেও দাঁতের ফাঁকে খাবার আটকে থাকে।

পুষ্টিকর খাবার খাওয়া

খাবারের তালিকায় বিভিন্ন ধরনের খাবার থাকে। তবে যেগুলো দাঁতের সুরক্ষার জন্য ভালো সেগুলো পাতে রাখুন। যেসব ফল এবং সবজিতে ফাইবার রয়েছে সেই খাবারগুলো খাবারের তালিকায় বেশি রাখতে হবে। এছাড়াও ডিম, দুধ, বাদাম প্রভৃতি খাদ্য দ্রব্য দাঁতের সুরক্ষায় এবং এনামেল তৈরিতে সাহায্য করে।

ঠাণ্ডা পানীয় খাবার সময় স্ট্র ব্যবহার

যে কোনো ধরনের ঠাণ্ডা পানীয় খাবার সময়ে স্ট্র ব্যবহার করা উচিত। বাজারে যে পানীয় পাওয়া যায় তা খেতে স্ট্র ব্যবহার করলে দাঁতের ক্ষয় অনেকটাই রোধ করা সম্ভব। এছাড়াও ঠাণ্ডা যে কোনো পানীয় খেতে স্ট্র ব্যবহার করতে হবে। এতে ঠাণ্ডা খাবার সময়ে তা সরাসরি দাঁতের সংস্পর্শে আসে না তাই এই সুরক্ষা পাওয়া যায়।  

ওষুধ খাওয়ার পরে ব্রাশ করা

এই ছোট্ট বিষয়টি আমরা অনেক সময়েই ভুলে যাই। যে সমস্ত তরল ওষুধ বা সিরাপ রোগ নিরাময়ের জন্য আমরা খাই। এতে  চিনির উপাদান বেশি থাকে যা দাঁতের ক্ষয়সহ বিভিন্ন সমস্যার সৃষ্টি করতে পারে। তাই নিজে এবং শিশুদের এ ধরনের ওষুধ খাওয়ানোর পর অবশ্যই ব্রাশ করুন।

সূত্র: বোল্ডস্কাই

 

Add