ঢাকা    রোববার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

coronavirus
আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বিশ্বব্যাপী ৩২৭৯৪৭০৪ ২৪১৯৩২৯৩ ৯৯৪০০৮
বাংলাদেশ ৩৫৭৮৭৩ ২৬৮৭৭৭ ৫১২৯

প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক চেয়ারম্যানকে দুদকে তলব

প্রকাশিত: ১০:০০, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

বেসরকারি প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে দায়িত্ব পালন করে শত শত কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয়টির ট্রাস্ট্রি বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান এম এ খালেককে জিজ্ঞাবাদের জন্য তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

আগামী ৪ মার্চ দুদকের প্রধান কার্যালয়ে তলব করে সোমবার অনুসন্ধান কর্মকর্তা কমিশনের সহকারী পরিচালক মো. আতাউর রহমান সরকারের সই করা নোটিশ পাঠানো হয়েছে বলে সংস্থাটির পরিচালক (জনসংযোগ) প্রনব কুমার ভট্টাচার্য্য জানিয়েছেন।

খালেকের রাজধানীর বারিধারার ৬ নম্বর রোডের ২ নম্বর বাড়ির ঠিকানায় এই নোটিশ পাঠানো হয়। জিজ্ঞাসাবাদের দিন তাকে জাতীয় পরিচয়পত্র, পাসপোর্ট ও আয়কর প্রত্যয়নপত্রের (যদি থাকে) ফটোকপি সঙ্গে নিয়ে আসতে বলা হয়েছে।

দুদকের পাঠানো নোটিশে অভিযোগের বিষয়ে বলা হয়, প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্ট্রি বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান ও প্রাইম ইসলামি সিকিউরিটিজ লিমিটেডের সাবেক চেয়ারম্যানসহ অন্যান্যদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির মাধ্যমে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শত শত কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে।

সুষ্ঠু অনুসন্ধানের স্বার্থে অভিযোগ সম্পর্কে এম এ খালেদের বক্তব্য শ্রবণ ও গ্রহণ করা প্রয়োজন উল্লেখ করে ওই নোটিশে বলা হয়, “নির্ধারিত সময়ে হাজির হয়ে বক্তব্য প্রদানে ব্যর্থ হলে বর্ণিত অভিযোগ সংক্রান্ত বিষয়ে আপনার কোনো বক্তব্য নেই মর্মে গ্রহণ করা হবে।”

প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয় ও প্রাইম ইসলামি সিকিউরিটিজ লিমিটেড ছাড়াও খালেদ প্রাইম ব্যাংক, প্রাইম ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড, প্রাইম ফাইন্যান্স ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড, পিএফআই সিকিউরিটিজ, প্রাইম ইনস্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড, প্রাইম ইসলামি লাইফ ইনস্যুরেন্স লিমিটেড, ফারইস্ট ইসলামি লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড, ফারইস্ট স্টক অ্যান্ড বন্ডস লিমিটেডসহ আরও বেশ কিছু প্রতিষ্ঠানের গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন।

খালেদের বিরুদ্ধে দুদকের অভিযোগ, দায়িত্ব পালনের সুযোগে ওইসব প্রতিষ্ঠান থেকে শত শত কোটি টাকা বের করে নিয়ে পরে নিজেই দায়িত্ব থেকে সরে পড়েন তিনি।

দুদকের নোটিশ প্রসঙ্গে বক্তব্য জানতে এম এ খালেকের সাথে যোগাযাগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

তবে তার ঘনিষ্ঠজনরা জানিয়েছেন, খালেক যেসব প্রতিষ্ঠানের দায়িত্ব ছিলেন সেগুলো থেকে সরে গিয়ে দেশের বাইরে অবস্থান করছেন তিনি।

দীর্ঘদিন ধরে খালেদ তার ঘনিষ্ঠদের সাথে আগের মত যোগাযোগ রাখছেন না বলে জানিয়েছেন তারা।

এম এ খালেকের বিষয়ে জানতে চাইলে প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আবদুল হান্নান চৌধুরী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “উনি গত এক বছর ধরে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে নেই। উনার সাথে আমাদের যোগাযোগ হয় না। এখন নতুন বোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনা করছে।”

 

Add