AllBanglaNews24

প্রকাশিত: ১১:৪৯, ২৬ মার্চ ২০২১

লজ্জার ষোলোকলা পূর্ণ করে হোয়াইটওয়াশ টাইগাররা

লজ্জার ষোলোকলা পূর্ণ করে হোয়াইটওয়াশ টাইগাররা

ছবি: সংগৃহীত

তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ ওয়ানডেতে শুক্রবার নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে খেলতে নেমেছিল বাংলাদেশ। ম্যাচটি ১৬৪ রানের বড় ব্যবধানে হেরেছে টাইগাররা। সিরিজের সব ম্যাচ হারায় ব্ল্যাকক্যাপসদের কাছে হোয়াইটওয়াশের লজ্জায় ডুবেছে তামিম ইকবালের দল।

বেসিন রিজার্ভে টস জিতে আগে ব্যাট করে বাংলাদেশকে ৩১৮ রানের লক্ষ্য দিয়েছিল স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড। রান তাড়া করতে নেমে টাইগাররা অল আউট হয় মাত্র ১৫৪ রানে।

নিউজিল্যান্ডের দেয়া লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই অধিনায়ক তামিমের উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় বাংলাদেশ। ইনিংসের প্রথম ওভার মেইডেন খেলার পর দ্বিতীয় ওভারে এক বল খেলে এক রান নেন তামিম। পরে ম্যাট হেনরির করা তৃতীয় ওভারের দ্বিতীয় বলটিতে ক্যাচ দেন উইকেটের পেছনে।

তামিম ৯ বল খেলে করেন ১ রান। তবে অপরপ্রান্তে লিটন দাস শুরু করেন সাবলীল ভঙ্গিতে। ট্রেন্ট বোল্টের করা দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলেই হাঁকান বাউন্ডারি। সেই ওভারের শেষ বলটিও সীমানাছাড়া করেন তিনি। পরে হেনরির করা পঞ্চম ওভারের প্রথম বলেও একই ফল এনে দেন লিটন।

কিন্তু তাকে সঙ্গ দেয়ার যেন কেউ ছিলেন না। পঞ্চম ওভারের তৃতীয় বলে অযথাই বড় শট খেলতে গিয়ে ফাইন লেগে ধরা পড়েন তিন নম্বরে নামা সৌম্য সরকার। পুরো সিরিজেই ব্যর্থ সৌম্য এ ম্যাচে করেছেন ৬ বলে ১ রান। তিন ম্যাচ মিলে মাত্র ৩৩ রান। প্রথম ম্যাচে শূন্য রানে ফেরার পর দ্বিতীয়টিতে করেছিলেন ৩২ রান।

তামিম-সৌম্য সাজঘরে ফিরে গেলেও নিজের মতো করে খেলে যাচ্ছিলেন লিটন। কিন্তু তাকে থামতে হয়েছে ট্রেন্ট বোল্টের অবিশ্বাস্য এক ক্যাচে। অফস্ট্যাম্পের বাইরের বলে পুল করতে গিয়ে টপ এজ হয় লিটনের। থার্ডম্যান থেকে অবিশ্বাস্য ক্ষিপ্রতায় সেটি লুফে নেন বোল্ট। ফলে ইতি ঘটে লিটনের ২১ রানের ইনিংস।

ইনিংসের সপ্তম ওভারে দলের মাত্র ২৬ রানে টপঅর্ডারের তিন উইকেট হারিয়ে গভীর খাঁদে পড়ে যায় বাংলাদেশ। সেখান থেকে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন মুশফিকুর রহীম ও মোহাম্মদ মিঠুন। রানের চাকা থেমে থাকলেও, উইকেট পড়তে দেননি এ দুজন। হেনরি-বোল্টদের সামাল দেয়ার পর কাইল জেমিসন, জিমি নিশামদের বিপক্ষে দাঁতে দাঁত চেপে নিজেদের উইকেট বাঁচিয়ে খেলার চেষ্টা করেন তারা।

কিন্তু ১৮তম ওভারের শেষ বলে বেহুদাই উড়িয়ে মারতে গিয়ে ডিপ স্কয়ার লেগে মিচেল স্যান্টনারের হাতে ধরা পড়েন মোহাম্মদ মিঠুন। তার ব্যাট থেকে আসে ৩৯ বলে ৬ রান। মিঠুনকে ফিরিয়ে ম্যাচে নিজের প্রথম উইকেট শিকার করেন কাইল জেমিসন।

মুশফিক ও নিজের ইনিংস বড় করতে পারেনি।নিশামের বলে তার হাতেই ক্যাচ দিয়ে ফেরেন এ উইকেট কিপার ব্যাটসম্যান। ফেরার আগে ৪৪ বলে ২১ রান করেন তিনি।

এরপর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ছাড়া আর কেউই ক্রিজে বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। ইনিংসের শেষ পর্যন্ত ৭৬ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। আর কোনো ব্যাটসম্যান দুই অংকের ঘর স্পর্শ করতে পারেননি।

নিউজিল্যান্ডের হয়ে জিমি নিশাম একাই শিকার করেন ৫ উইকেট। এছাড়া ম্যাট হেনরি চারটি ও কাইল জেমিসন একটি উইকেট নেন। 

এর আগে ডেভন কনওয়ে ও ড্যারেল মিচেলের ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি ৩১৮ রানের বড় সংগ্রহ দাঁড় করায় নিউজিল্যান্ড। যা কি না বেসিন রিজার্ভ মাঠে সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহের রেকর্ড। এছাড়া পঞ্চম উইকেটে এ মাঠের সর্বোচ্চ ১৫৯ রানের জুটি গড়েন কনওয়ে (১২৬) ও মিচেল ১০০)।

সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচ যথাক্রমে ৮ ও ৫ উইকেটের ব্যবধানে হেরেছিল বাংলাদেশ। এই নিয়ে নিউজিল্যান্ডে ২৯টি ম্যাচ খেলে সবগুলোতেই হারের মুখ দেখলো টাইগাররা।
 

শেয়ার করুন

Advertising
allbanglanewspaper-link
নামাজের সময়সূচি :: Salah Time in Bangladesh
ফজর ৪:৩২ ভোর
যোহর ১১:৫৬ দুপুর
আছর ৪:১৭ বিকেল
মাগরিব ৬:০৩ সন্ধ্যা
ইশা ৭:১৬ রাত

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

সর্বশেষ